গোয়াইনঘাট (সিলেট) প্রতিনিধি:

জাফলং পাথর কোয়ারীগুলো থেকে পাথর উত্তোলন বন্ধ থাকায় কর্মহীন হয়ে পড়েছে কয়েক লাখ শ্রমিক। উর্পাজন না থাকায় মানবেতর দিন কাটছে তাদের। দ্রুত এসব পাথর কোয়ারী খুলে দেওয়ার দাবিতে বিশাল মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেছে নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা।

এদিকে পর্যটন এলাকায়- ইসি এ ঘোষণা বাস্তবায়নের পর থেকেই বন্ধ রয়েছে সিলেটের পাথর কোয়ারীগুলো। অপর দিকে জাফলং পাথর কোয়ারী সচল করতে ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়ে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন শ্রমিকনেতারা।

সিলেটের জাফলং পাথর কোয়ারী থেকে পাথর উত্তোলন বন্ধ, শুধু জাফলংই নয় বন্ধ রয়েছে জৈন্তার শ্রীপুরসহ- সিলেটের সকল পাথর কোয়ারী,এতে বেকার হয়ে পড়েছে সিলেটের বিভিন্ন উপজেলার কয়েক লাখ পাথর শ্রমিক। বিকল্প কর্মসংস্থান না থাকায় মানবেতর জীবন-যাপন করছেন শ্রমিকরা।

শ্রমিকদের অভিযোগ- সনাতন পদ্ধতিতে ও পাথর উত্তোলন করতে দেওয়া হচ্ছেনা। এর প্রতিবাদে গেল বুধবার দুপরে জাফলং মামার বাজার পয়েন্টে কয়েক লাখ শ্রমিক ’কাজ চাই’ ভাত চাই প্রশাসন জবাব চাই’ ব্যানারে বিশাল মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে দাবি জানিয়েছেন কোয়ারীগুলো খোলে দেওয়ার।

এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা ট্রাক-পিকআপ, কার্ভাডভ্যান মালিক সমিতির সভাপতি সৈয়দ মুকসেদ আহমদ, সিলেট জেলা ট্রাক-পিকআপ, কার্ভাডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু- সরকার, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ, পূর্ব জাফলং ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান লেবু, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক সামছুল আলমসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

বক্তারা বলেন জাফলং পাথর কোয়ারী আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে সচল করা না হলে লাগাতার আন্দোলোনের মাধ্যমে বৃহত্তর কর্মসূচির ঘোষনা করা হবে। মানববন্ধন চলা কালীন সময়ে সকল প্রকার পন্যবাহী ট্রাক ও দোকানপাট বন্ধ ছিল।

mktelevision.net/সালমান শাহ/হাবিব ইফতেখার/শাহিনুর/শিউলী

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*