ডেস্ক রির্পোট:

১৬ অক্টোবর উদ্বোধন হবে নতুন আন্তঃনগর ট্রেন ‘কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস’। সরাসরি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধান মন্ত্রী সেখ হাসিনা ট্রেনটির উদ্বোধন করবেন। ১৭ অক্টোবর থেকে এর বাণিজ্যিক যাত্রা শুরু হবে। নির্ধারিত করা হয়েছে ট্রেনটির সয়সূচি।

জানা গেছে, মাঝপথে ট্রেনটি বিরতি দেবে রংপুর, বদরগঞ্জ, পার্বতীপুর, জয়পুরহাট, সান্তাহার, মাধনগর ও ঢাকা বিমানবন্দর এই সাতটি স্টেশনে। সকাল ৭:২০ মিনিটে কুড়িগ্রাম থেকে যাত্রা শুরু করবে ট্রেনটি। এরপর রংপুর ৮:২৯ মিনিটে এসে দোলনচাঁপা এক্সপ্রেসের সঙ্গে ক্রসিং করে ৮:৩৭ মিনিটে ছেড়ে যাবে। বদরগঞ্জ আসবে সকাল ০৯:০১ এ, ছেড়ে যাবে ০৯:০৩ এ। পার্বতীপুর আসবে সকাল ০৯:৩০ এ, ছেড়ে যাবে সকাল ০৯:৫০ এ, জয়পুরহাট আসবে সকাল ১০:৪৯ এ, ছেড়ে যাবে ১০:৫২।

 

সান্তাহার আসবে সকাল ১১:৩৫ এ, ছেড়ে যাবে ১১:৪০ এ, মাধনগর আসবে দুপুর ১২:১০ এ, ছেড়ে যাবে ১২:১২ এ, ১৫:১০ মিনিটে টাঙ্গাইল এসে বনলতা এক্সপ্রেসের সঙ্গে ক্রসিং সম্পন্ন করে ১৫:১৯ মিনিটে ছেড়ে যাবে। মৌচাকে ১৬:০৩ মিনিটে সিল্কসিটির সঙ্গে ক্রসিং করে ১৬:০৯ মিনিটে ছেড়ে যাবে। টাঙ্গাইল এবং মৌচাকে কোনো কমার্শিয়াল স্টপেজ নেই। শুধু ক্রসিংয়ের জন্য দাঁড়াবে। এরপর ট্রেনটি ১৬:৫০ মিনিটে বিমানবন্দর পৌঁছে গন্তব্য স্টেশন ঢাকায় যাবে ১৭:২৫ মিনিটে। এরপর ঢাকা থেকে রাত ০৮:৪৫ মিনিটে ছাড়বে ট্রেনটি। বিমানবন্দর আসবে রাত ০৯:১২ তে, ছেড়ে যাবে ০৯:১৭ তে। এরপর রাত ১২:৪৭ মিনিটে আব্দুলপুরে নীলসাগর এবং ০১:১২ মিনিটে নাটোরে রংপুর এক্সপ্রেসের সঙ্গে ক্রসিং করবে। এই দুটি কমার্শিয়াল স্টপেজ নয়। মাধনগর আসবে রাত ০১:৪১, ছেড়ে যাবে রাত ০১:৪৩।

 

সান্তাহার আসবে রাত ০২:১১, ছেড়ে যাবে ০২:১৫ মিনিটে। এখানে ৭০৬ একতা এক্সপ্রেসর সঙ্গে ক্রসিং সম্পন্ন হবে। জয়পুরহাট আসবে রাত ০২:৫০,ছেড়ে যাবে রাত ০২:৫৩ এ। পার্বতীপুর আসবে রাত ৪টায়,ছেড়ে যাবে রাত ০৪:১০ এ। বদরগঞ্জ পৌঁছবে ভোর ০৪:২৭, ছেড়ে যাবে ০৪:২৯ মিনিটে। এরপর ভোর ০৪:৫৫ মিনিটে রংপুর পৌঁছে ০৫:০৩ এ ছেড়ে যাবে। ভোর ৬:১৫ মিনিটে গন্তব্য স্টেশন কুড়িগ্রাম পৌঁছবে ট্রেনটি।

কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেসের সাপ্তাহিক বন্ধের দিন বুধবার।

ভাড়ার তালিকাঃ

শোভন চেয়ার : ৫১০৳
এসি চেয়ার : ৯৭২৳ (ভ্যাটসহ)
এসি সিট : ১১৬৮৳ (ভ্যাটসহ)
এসি বার্থ : ১৮০৪৳ (ভ্যাট+বেডিং চার্জসহ)

রেক কম্পোজিশনঃ

এই ট্রেনের লোড হবে ১৪/২৮

৮টি শোভন চেয়ার কারে সিট থাকবে ৬০ টি করে।
২টি এসি চেয়ার কারে সিট থাকবে ৫৫ টি করে।
২টি গার্ডব্রেকে শোভন চেয়ার সিট থাকবে ১৫ টি করে।
১টি এসি কেবিনে আসন থাকবে- দিনে (৭৯৮) ৩৩ টি সিট, আর রাত্রে (৭৯৭) ১৮ টি বার্থ।
১টি পাওয়ার কার সংযুক্ত থাকবে।

রেল মন্রালয় এর সুত্র মতে, ৭৯৭ আপে আসন থাকবে মোট ৬৩৬ টি, ৭৯৮ ডাউনে মোট আসন থাকবে ৬৫৩ টি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*