আখাউড়া (ব্রাক্ষনবাড়ীয়া) প্রতিনিধি:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় আন্ নূর ইসলামিয়া মহিলা মাদ্রাসা ও এতিমখানার ভাইস প্রিন্সিপাল শওকত হোসেন রিপনের বিরুদ্ধে মাদ্রাসার একাধিক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ এনে তার গ্রেফতার ও সংশ্লিষ্টদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে শিক্ষক ও শিক্ষার্থী এবং এলাকাবাসী।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টা থেকে বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত আখাউড়া পৌরশহরের বাইপাস বঙ্গবন্ধু স্কয়ার  এলাকায় এ কর্মসূচি পালিত হয়।

এসময় বিক্ষোভকারীরা ওই ভাইস প্রিন্সিপাল শওকত হোসেন রিপন ও প্রিন্সিপাল আসমা বেগমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চেয়ে স্লোগানও দেয়।

এলাকাবাসী ও অভিভাবকদের অভিযোগ, আখাউড়া পৌরশহরের দূর্গাপুর গ্রামে আন নূর ইসলামিয়া মহিলা মাদ্রাসা ও এতিমখানার প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সপাল আসমা বেগমের সহযোগিতায়  ওই মহিলা মাদ্রাসার অভিযুক্ত ভাইস প্রিন্সপাল শওকত হোসেন রিপনের যৌন নিপীড়নের শিকার হয় একাধিক ছাত্রী। রোববার রাতে এক  ছাত্রীকে যৌন নির্যাতন চালায়। পরে সোমবার সকালে হঠাৎ করে ওই ছাত্রী গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে মাদরাসার অন্য শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে শিক্ষক শওকত হোসেন রিপনের অপকর্মের কথা জানতে পেরে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে।

মাদ্রাসার ছাত্রীদের অভিযোগ, ওই লম্পট ভাইস প্রিন্সিপাল রিপন বিভিন্ন সময় কৌশলে একাধিক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন চালিয়েছে। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী মাদ্রাসাটিতে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে।

এদিকে ঘটনার পর থেকেই আন নূর ইসলামিয়া মহিলা মাদ্রাসা ও এতিমখানার অভিযুক্ত শওকত হোসেন রিপন এবং প্রতিষ্ঠানটির প্রিন্সিপাল আসমা বেগম ও  পরিচালনা কমিটির সদস্যসহ শিক্ষকরা পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রসুল আহমেদ নিজামী বলেন,  এধরনের অপরাধী যেই হোক আমরা তাকে আইনের আওতায় এনে ব্যবস্থা নিব ও অপরাধী কে গ্রেফতারে আমদের প্রচেষ্ঠা অব্যাহত আছে এবং আমরা গ্রেফতারে সক্ষম হবো।

বাদল আহাম্মদ খান/হাবিব ইফতেখার/শাহিনুর/এস রহমান

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*