গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধা পলাশবাড়ী মেরিরহাট ফাজিল মাদ্রসার অধ্যক্ষ বহুল আলোচিত একাধীক নাশকতা মামলার আসামী লেবু মওলানার বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পলাশবাড়ী উপজেলার হোসেনপুর ইউনিয়নের মেরিরহাট ফাজিল মাদ্রাসাটি ১৯৫৭ সালে পলাশবাড়ী-ঘোড়াঘাট মেইন রোড সংলগ্ন মেরিরহাটে স্থাপিত হয়। দীর্ঘদিন যাবৎ মাদ্রাসাটির অধ্যক্ষ মোজাম্মেল হকের আমলে কার্যক্রম সুনামের সাথে চলে আসছিলো। কিন্তু এই মাদ্রাসায় অধ্যক্ষ লেবু মওলানা দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই শুরু হয় ক্লাসে ফাঁকি দেওয়া, সঠিক সময়ের আগেই প্রতিষ্ঠান ছুটি দেওয়া, ছাত্র- ছাত্রীদের উপস্থিতি কম হওয়াসহ নানা অনিয়ম ও দুর্নীতি। তারসাথে মাদ্রাসার জমি ও দোকান ঘরের ভাড়ার টাকা আত্মসাৎ করা, গাছ কেটে নেয়া এবং শিক্ষক প্রতিনিধি সদস্য গঠনে নির্বাচনে না না অভিযোগ আছে। তার কারনে দিন দিন প্রতিষ্ঠানের অবস্থা বেহাল হয়ে পড়েছে।

স্বরজমিন গিয়ে দেখা যায়, বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় মাদ্রাসায় তালাবদ্ধ। মাঠেই কথা হয় মাদ্রসার কিছু শিক্ষকের সাথে । এবং সেখানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন নেই । এ বিষয়ে অধ্যক্ষ লেবু মওলানার নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, বৃহস্পতিবার তাই খেলা-ধুলা করিয়ে সব ছাত্র- ছাত্রীদেরকে ছুটি দিয়ে, সকাল ১১ টার দিকে প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে চলে এসেছি। এবং শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচনের অনিয়মের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি কোন অনিয়ম করিনি।

বিষয়টি নিয়ে মাদ্রাসা শিক্ষক মোঃ জাহেদুর রহমান, মোঃ ফরিদুল ইসলাম ও মোঃ ইয়াদুল ইসলামের নিকট জানতে চাইলে তারা জানান, আমরা এর আগেও মৌখিক অভিযোগ করেছি এবং পরে উপজেলা চেয়ারম্যানের বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করে তার অনুলিপি উপজেলা নির্বাহী অফিসার, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও মেরিরহাট ফাজিল মাদ্রাসার সভাপতির বরাবর দিয়ছি।

খালেদ হোসেন/হাবিব ইফতেখার/শাহিনুর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*