লেবানন প্রতিনিধি:

সৌদি আরব, লেবানন সহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উদযাপিত হয়েছে। লেবাননে প্রবাসী বাংলাদেশীরা আনন্দ ঘন পরিবেশে ঈদ উদযাপন করছে। ঈদের দিন সকালে লেবাননে অনুষ্ঠিত প্রতিটি ঈদের জামায়াতে প্রবাসী বাংলাদেশীদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। নামায শেষে প্রত্যেকে একে অপরের সাথে আলিঙ্গন করে ঈদের আনন্দ উপভোগ করে। ঈদের দিন সমগ্র লেবাননে প্রবাসী বাংলাদেশীদের আয়োজনে ছোট বড় প্রায় ৩০টি ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়েছে। উল্লেখযোগ্য বড় জামায়াত গুলোর মধ্যে লাইলাকি এয়ারপোর্ট সির্কি, আইন আল রোমানী, সালোমী কাঠ ফ্যাক্টরি ও হাইছুলুম পাথর ফ্যাক্টরির জামায়াত ছিল অন্যতম। এছাড়া লেবাননের প্রানকেন্দ্র রিয়াজুছালায় আল আমিন মসজিদে ঈদের প্রধান জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে লেবাননের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা, বৈরুত দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত সহ সাধারন লেবানিজদের পাশাপাশি প্রচুর প্রবাসী বাংলাদেশীরা ঈদের নামাজ আদায় করে।

রারাষ্ট্রদূত এক শুভেচ্ছাবার্তায় লেবাননের সকল প্রবাসীদের ঈদ উল আযহার শুভেচ্ছা সহ ঈদুল আযহার ত্যাগে উদ্ভাসিত হয়ে হিংসা বিদ্ধেষ ভুলে গিয়ে সকলে মিলেমিশে একত্রে প্রবাসে বসবাস করে দেশের সুনামকে অক্ষুন্ন রাখবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। প্রতিটি জামায়াতে দেশ ও মুসলিম উন্মাহর কল্যান কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়। ঈদের দিনেও অনেক প্রবাসীকে কাজ করতে দেখা যায়।

প্রবাসীরা নিজেদের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, নামাজ থেকে ফিরে আবার কর্মস্থলে ফিরে যেতে হয়, যারা ছুটি পায় এখানকার বন্ধুবান্ধব নিয়ে সামান্য ঘোরাফেরা বা একে-অপরের বাসায় গিয়ে কিছুক্ষণ আড্ডা দিয়ে ফিরে এসে আবার পরদিন ডিউটির প্রস্তুতি, এভাবেই কেটে যায় আমাদের ঈদ নামক কষ্টের দিনটি । আমাদের ঈদ যেমনই যাক অন্তত এটুকু জেনে ভালো লাগে যে আমাদের কষ্টের উপার্জিত টাকা দিয়ে আমাদের পরিবার সুখে-শান্তিতে ঈদ করতে পারছে, একজন প্রবাসী হিসেবে এটাই আমাদের সার্থকতা। পরিবার পরিজনের সাথে ঈদ না করতে পেরে অনেক প্রবাসীই আক্ষেপ পোষন করেন।

বাবু সাহা/হাবিব ইফতেখার/শাহিনুর/এস রহমান

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*