কাহারোল (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: 
দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার কাহারোল হাট শেষ মুহূর্তে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভীড়। শনিবার সকাল থেকে দূর-দুরান্ত হতে গরু ব্যবসায়ীরা ও খামারিরা হাটে প্রচুর পরিমান গরু আমদানী করেছে। ভারতের গরু হাটে আসলেও দেশী গরুর চাহিদা বেশী। ক্রেতারা দেশী গরু কিনতে বেশী আগ্রহী। এখন পর্যন্ত কোরবানীর পশুর দাম ক্রেতাদের নাগালের মধ্যে রয়েছে। তবে গো-খাদ্যের দাম বেশী হওয়ায় গরু পালনে সাথে জড়িত খামারিরা লোকসানের মুখে পড়েছেন বলে তাদের দাবি।
গরু ব্যবসায়ী জয়নাল আবেদীন বলেন, কষ্ট করে গরু পালন করে হাটে দাম না পাওয়ায়  হতাশা প্রকাশ করেন। স্থানীয় গৃহস্থের পাশা পাশি কোরবানী পশু ব্যবসায়ীরাও কাহারোল হাটে গরু, মহিষ, ছাগল, ভেড়া আমদানী করেছেন। ব্যবসায়ীরা দেশী গরুর পাশা পাশি ভারতীয় গরু আমদানী করেছেন। তবে এ বছর দেশী গরুর কদর বেশী। এবার মহিষ, ছাগল ভেড়ার দাম কম।
কাহারোল হাটে কথা হয় গরু ক্রেতা আলাউদ্দীন হকের সাথে তিনি বলেন, এ বছর কোরবানীর পশুর বাজার নরম। গেল বছর যে গরুর দাম ১ লক্ষ ১৫ হাজার টাকায় কিনে ছিলাম এবার একই ধরনের গরু কিনলাম ৯৫ হাজার টাকায়। খামারিরা অভিযোগ করেন, ভারতীয় গরু বাজারে আমদানী হওয়ায় গরু বাজার পড়ে গেছে। হাটে কোরবানীর পশু উঠলেও দাম কম। কোরবানী পশুর হাটে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়। ইজারাদার বলছেন, ক্রেতাদের চাপ বাড়তে শুরু করেছে আজকের হাটে।
মোঃ আব্দুল্লাহ/হাবিব ইফতেখার/শাহিনুর/এস রহমান 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*