আখাউড়া প্রতিনিধি:

আখাউড়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ফারুক মোল্লা (১৬) নামে এক স্কুল ছাত্রের উপর প্রাণঘাতি হামলা হয়েছে। সোমবার বিকালে পৌরসভার দেবগ্রামে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। এই হামলায় গুরুত্বর আহত ফারুকের চিকিৎসা চলছে ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালের আইসিইউতে সে এখন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে, হারিয়ে ফেলেছে স্মৃতি শক্তি। এই ঘটনায় পুলিশ রহমান খান (৫০) নামে এক হামলাকারীকে গ্রেফতার করেছে।

 

গুরুত্বর আহত ফারুকের বাবা বারন মোল্লা জানায়, তার ছেলে ফারুক মোল্লা দেবগ্রাম সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র। সোমবার বিকালে গ্রামের মদন খানের পুকুর পাড়ে গেলে তার উপর দা, বল্লমসহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র দিয়ে অতর্কিত প্রাণঘাতি হামলা চালায় তাদের একই গ্রামের ছোটন খান (১৮), রহমান খান (৫০), আজম খান (৪৮)সহ ১১-১২ জনের একটি চক্র। এই হামলায় ফারুক গুরুত্বর আহত হয়। মাথায় প্রাণঘাতি জখমসহ সারাশরীর রক্তাক্ত হয়ে যায়। পরে মুর্মুষ অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে হাসপাতালের আইসিইউতে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ফারুক। এই ঘটনায় ফারুকের চাচা মনা মোল্লা (৫৫) বাদী হয়ে আখাউড়া থানায় মামলা দায়ের করেছে।

 

ফারুকের ফুফু জানান, পূর্ব হইতে বিভিন্ন সামাজিক বিরোধকে কেন্দ্র করে আসামীরা জোটবদ্ধ হয়ে তাদের উপর প্রাণঘাতি হামলার চেষ্টা করছে। ঘটনাস্থলে একা পেয়ে এই সুযোগে তার ছেলে ফারুক মোল্লাকে হত্যার জন্য আসামীরা হামলা চালায় বলেও তিনি জানান। তিনি আরো জানান, তার ছেলে আশংকাজনক অবস্থায় হাসপাতালের আইসিইউতে রয়েছে। সে বাচবে কি না তাও নিশ্চিত বলতে পারছে না।

 

এ ব্যাপারে আখাউড়া থানার ওসি তদন্ত মোহাম্মদ আরিফুল আমিন জানান, এই ঘটনায় রহমান খান নামে একজন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকী আসামীদের গ্রেফতার করতে পুলিশ নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করছে।

 

বাদল আহাম্মদ খান/হাবিব ইফতেখার/শাহিনুর/এস রহমান

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*