মালয়েশিয়া প্রতিনিধি:

মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশের মধ্যে বানিজ্য এবং কর্মসংস্থান বিনিয়োগে দু দেশেরই উন্নয়ন হবে এবং এশিয়ার এই দুই দেশের মাঝে পূর্বকাল থেকেই প্রকৃতিগতভাবেই সুসম্পর্ক বজায় আছে। বিনিয়োগ ও বাণিজ্যের ক্ষেত্রে দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা জোরদার হলে উভয় পক্ষই লাভবান হবে। শুক্রবার বিকাল ৫ ঘটিকায় বাংলাদেশী প্রবাসী উন্নয়ন পরিষদ মালয়েশিয়ার উদ্যোগে কুয়ালালামপুরের হোটেল গ্র্যান্ড প্যাসিফিক এর বলরুমে “আধুনিক বাংলাদেশে বিনিয়োগ এবং প্রবাসীদের জন্য করনীয় শীর্ষক আলোচনা সভায় বানিজ্য মন্ত্রী জনাব টিপু মুনশি এ মন্তব্য করেন। বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, দেশব্যাপী ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরি করেছে সরকার। ইতিমধ্যে ২২টি অঞ্চলের কাজ শুরু হয়েছে। যার মধ্যে সরকারিভাবে ১৯টি এবং বেসরকারিভাবে তিনটি অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। তিনি বলেন, মালয়েশিয়া চাইলে ব্যবসার জন্য একটি অর্থনৈতিক অঞ্চল নির্বাচন করে নেওয়ার সুযোগ রয়েছে তাদের জন্যে।

 

হারুন মিয়াজীর কোরআন তেলাওয়াত, প্রদীপ কুমারের গীতা পাঠ করেন এবং মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী ও প্রকৌশলী মোঃ রাহাদ উজ্জামানের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের পরিচালক এবং মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের যুগ্নআহ্বায়ক অহিদূর রহমান ওহিদ, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় বানিজ্য মন্ত্রী জনাব টিপু মুন্সী এম পি, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হাইকমিশনের মান্যবর হাইকমিশনার শহীদুল ইসলাম, এ কামাল হোসেন চৌধুরী, ডাঃ শংকর পোদ্দার, প্রকৌশলী আমিরুল ইসলাম খোকন, হাজী আব্দুল হামিদ জাকারিয়া, সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দাতু আলমগীর হোসেন, দাতু আব্দুর রৌফ, আবুল কাসেম, শাখাওয়াত হোসেন সুমন, লিটন দেওয়ান, হুমায়ুন কবিরসহ আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ থেকে আগত রংপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মাননীয় বানিজ্যমন্ত্রীর রাজনৈতিক সচিব তুহিন চৌধুরী, মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের প্রথম সচিব বানিজ্য রাজিবুল হাসান, প্রথম সচিব লেবার উইং মোঃ হেদায়েতুল ইসলাম মন্ডল, এবং উপসচিব বানিজ্য আমিনুল ইসলাম।

 

অনুষ্টানে জাতীয় সংগীত পরিবেশন সহ অকালে মৃত্যবরন কারী প্রবাসী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবার, শহীদ বুদ্ধিজীবী এবং মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী সকল শহীদদের স্মরনে ১ মিনিটে নিরবতা পালন করা হয়। মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের যুগ্নআহ্বায়ক রাশেদ বাদলের স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হওয়া মূল পর্বে বক্তৃতা করেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাওলানা আবু বকর সিদ্দিক, নূর মোহাম্মদ ভূঁইয়া, কবি আলমগীর হোসেন, শওকত হোসেন তিনু, বিল্লাল মাহমুদ, বাবুল হোসেন, আরমানসহ আর ও অনেকে। আলোচনা সভায় মালয়েশিয়া বিভিন্ন কমিউনিটির নের্তৃবৃন্দ প্রবাসীদের বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরে এর প্রতিকার চান। অনুষ্টান শেষে মননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে ফুল দিয়ে বরন করেন, হুমায়ুন কবির আমির, আব্দুল বাতেন, বাবলা মজুমদার, শাখাওয়াত হোসেন, ফারুকসহ আরো অনেকে।

মেহেদী হাসান/হাবিব ইফতেখার/শাহিনুর/এস রহমান

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*