বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি:

যশোরের বেনাপোলে বিভিন্ন ক্লিনিকে চাঁদাবাজির অভিযোগে পল্লী টিভির সাংবাদিক পরিচয়দানকারী চার জনকে ১টি ক্যামেরা, ১টি মাইক্রফোন ও ১টি মাইক্রোকার আটক করেছে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ।

বুধবার(১৯ জুন) রাত ১০ টায় বেনাপোল বাজারের একটি ক্লিনিক থেকে পোর্টথানা পুলিশ তাদের আটক করে। আটকরা হলেন, জীবনগরের আশতালাপাড়া গ্রামের সৌরব হোসেনের ছেলে শাহাজাত বেল্লাল(২৯), একই এলাকার আব্দুল জব্বারের ছেলে সবুজ হোসেন (২০), তারানিবাশ পশ্চিম পাড়া এলাকার করিমের ছেলে আলামিন বিশ^াস (২৬) ও দৌলতগঞ্জ এলাকার মিজানুর রহমানের ছেলে শিতল হোসেন (২০)।

বেনাপোল রজনী ক্লিনিকের ম্যানেজার আরাফাত ইসলাম সুইট জানায়, পল্লী টিভির ষ্টিকার লাগানো একটি মাইক্রোবাস নিয়ে চার যুবক সাংবাদিক পরিচয়ে তাদের ক্লিনিকে আসে। পরে ভয়ভিতি দেখিয়ে দুই লাখ টাকা দাবী করে। এসময় তাদের আচারণ সন্দেহ জনক হওয়ায় পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তাদের আটক করে নিয়ে যায়।

বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) এসআই এইচ এম আব্দুল লতিফ জানান, অভিযোগ পেয়ে চাঁদাবাজির সত্যতা পাওয়ায় তাদের চার জনকে আটক করা হয়েছে। তারা গত তিন দিন ধরে বেনাপোল ও যশোরের বিভিন্ন ক্লিনিকে ভয়ভিতী দেখিয়ে চাদা আদায় করছিল। তাদের ব্যবহৃত একটি মাইক্রবাস ও চাদাবাজির কিছু টাকা জব্দকরা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনী প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান তিনি।

মোঃ রাসেল ইসলাম/হাবিব ইফতেখার/শাহিনুর/এস রহমান

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*