সৌদি আরব প্রতিনিধি:

সৌদি আরবের বাবতাইন কোম্পানির ৩৮   জন বাংলাদেশী শ্রমিকরা মানবেতর জীবন যাপন করছেন এবং দূতাবাসের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

উল্লেখ্য ২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে তারা ঢাকা রাব্বি ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সির- লাইসেন্স-২৫৮ মাধ্যমে ফাহাদ কোম্পানির ভিসায় তারা প্রবাসে আসেন, ভুক্তভোগী শ্রমিকরা বলেন, তাদের ফাহাদ কোম্পানিতে কাজ দেয়ার কথা থাকলেও, তারা তা না করে বাবতাইন কোম্পানিতে কাজ দেয়, দীর্ঘ ৭ মাস কাজ করলেও তাদের কোন প্রকার বেতন ভাতা প্রদান করা হয়নি। শ্রমিকরা আরও জানান, তাদেরকে একটি ঘরে রাখা হয় এবং কোম্পানিতে কাজ না দিয়ে সাপ্লায়ার কোম্পানির মাধ্যমে অন্যত্র ৩ মাস কাজ করার পরেও  বেতন না দিয়েই বিদায় করে দেয় আমাদের।

তাদের একটি আকুল আবেদন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও  রাস্ট্রদূতের কাছে দেশে ফিরে যাওয়ার জন্য সহযোগিতা  চেয়েছেন। তারা দেশে ফিরে যেতে চান।

তারা রিতিমত না খেয়েই কাজ করেছেন, গেল ১৩ জুন হঠাৎ করে বাবতাইন কোম্পানি থেকে তাদের বের করে দেয়া হয়েছে,  সেখান থেকে তারা রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাসে  গেলেও রাতে দূতাবাস বন্ধ থাকায় তারা ফিরে এসে রিয়াদস্থ বাথা বাংগালী মার্কেটের আল রাজি বিল্ডিংয়ের নিচে মসজিদে অবস্থান নেন।

এই ব্যাপারে দূতাবাসের শ্রম কাউন্সেলর মেহেদী হাসান এর মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন আমরা ব্যাপারটি জানতামনা, এখন যখন জেনেছি তখন সব ধরনের  ব্যবস্থা নেয়া হবে।

লুবনা আক্তার বৃষ্টি/হাবিব ইফতেখার/শাহিনুর/এস রহমান

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*