মদিনা প্রতিনিধি:

আর দশটা পুরুষ কর্মীর মত আইরিন আক্তার নামের মেয়েরা যখন ভাগ্য পরিবর্তনের পথ হিসেবে প্রবাস কে বেছে নেয় তখন বুঝতে হবে তাদের জীবন গল্প কিন্তু একটু ভিন্ন রকম।

একজন নারী তার স্বামী সন্তান ছেড়ে আত্মীয় স্বজন এমনকি তার বাবার বাড়িতে ১টি দিন থাকতে পারত না সেখানে কেমন করে একজন নারী বছরের পর বছর স্বামী সন্তান পরিবার পরিজন ছেড়ে  প্রবাসে জীবন যাপন করে।

নারীরা জন্মগতভাবেই অবলা কখনো বাপের বাড়ি কখনো স্বামীর বাড়িতে তাদের জীবন পার করতে হয় যখন দুই বাড়িতেই তাদের জীবনের আনন্দটুকু হারিয়ে যায় তখন একজন নারী হয়ে যায় নিঃস্ব থেকে নিঃস্ব। সে নিঃসঙ্গতা চাপ তাকে বাধ্য করে দেশ ছেড়ে বিদেশে পাড়ি জমাতে।

গত ৮ বছর আগে আইরিন আক্তার এর বিয়ে হয় তারাগণ গ্রামের মোঃ আল আমিন এর সাথে. তাদের ঘরে জন্ম নেয় এক ফুটফুটে পুত্র সন্তান.. বিয়ের বিয়ের সাড়ে পাঁচ বছর পরে স্বামী আলামিন ডিভোর্স দেয় আইরিন আক্তার কে। পুত্র সন্তানটি সাথে নিয়ে চলে আসেন হতদরিদ্র পরিবার তার মায়ের কাছে। সেখানে তার জীবন যাত্রা যখন খুব অন্ধকার ছন্দ তখন সিদ্ধান্ত নেন বিদেশ সফরের। আইরিন আক্তার প্রায় আড়াই বছর ধরে সৌদি আরবে গৃহকর্মী কাজে কর্মরত আছেন। তিনি সৌদি আরব আসার পূর্বে তার পূত্র সন্তান তার মায়ের কাছে রেখে আসেন। কষ্টের প্রবাসে প্রতিটি নিঃশ্বাসে জানতে চাই তো কেমন আছে তার একমাত্র পুত্রসন্তানটি।

গত ০১/১২/২০১৮ তারিখে দুপুর একটার দিকে আইরিন আক্তার এর কাছে ফোন আসে তার একমাত্র পুত্র সন্তানটি হারিয়ে গেছে। খবরটি শোনার সাথে সাথে আইরিন আক্তার অজ্ঞান হয়ে পড়েছিলেন প্রায় পুরোটা দিন।

তার হারিয়ে যাওয়া পুত্রসন্তান টির নাম মোহাম্মদ ইমাম হোসেন পিতার নাম মোঃ আল আমিন মাতার নাম আইরিন আক্তার গ্রাম তারাগন পোস্ট অফিস আখাউড়া থানা আখাউড়া জেলা বি বাড়িয়া। আইরিন আক্তার এর আর্তনাদ যদি কোন সহৃদয় ব্যক্তি মোঃ ইমান হোসেনের সন্ধানপান তাহলে উক্ত ঠিকানায় পাঠিয়ে দেওয়া হয় যোগাযোগের মাধ্যম।০১৩১৮৫০৬১৪০

(ভিডিওতে বিস্তারিত দেখুন, লাইক/শেয়ার এবং সাবস্ক্রাইব করুন)

www.mktelevision.net/জাবেদ ইকবাল/হাবিব ইফতেখার

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*