গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
এম কে টেলিভিশনের পক্ষ থেকে আপনাদের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়ে শেকড়ের সন্ধানের এক নতুন প্রতিবেদন নিয়ে ফিরলাম আমি ইফতেখার।

তবে এবারো একই বিষয়বস্তু, ভিন্নতা নেই। এলাকাভিত্তিক একই ঘটনা। গাছ খেকোর হুংকার। কেউ এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গেলেই তাকে পড়তে হচ্ছে বিপাকে। গাছ খেকো চোরদের দাপট এতই প্রকোট, স্বাক্ষিদেরও পড়তে হয় বিপদে। ফলে দেখা যাচ্ছে, নিজেদের রক্ষার্থে বাধ্য হয়ে চোরদের সাথে মিমাংশা করতে হয়। আর এভাবে প্রভাব খাটা গাছখেকো চোরদের দৌরাত্ব বেড়েই চলছে। সেই সাথে তারা গড়ছে অবৈধ্য অর্থের পাহাড়। এবার একই ঘটনা ঘটেছে গাইবান্ধা সাঘাটায়। এম কে টেলিভিশনের শেকড়ের সন্ধানের প্রতিবেদনে সেটি উঠে এসেছে।  সরেজমিনে ঘুরে তথ্য-উপাত্ত নিয়ে তৈরী করা প্রতিবেদনটি উর্দ্ধতন কর্মকতাদের দৃষ্টি আকর্ষণসহ জানুক সাধারণ মানুষ। গাইবান্ধা-সাঘাটা রাস্তা প্রশস্থকালে গাইবান্ধার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গণ উন্নয়ণ কেন্দ্র জেলা পরিষদের গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে ৫ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা।

এ বছরের ৪ মে গাইবান্ধা-সাঘাটা রাস্তা প্রশস্তকালে গাইবান্ধার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গণ উন্নয়ণ কেন্দ্র জেলা পরিষদের ৫টি মেহগনি ও ১টি আম গাছ কেটে ফেললে ৩জনের নাম উল্লেখ করে ৫জনকে আসামী করে জেলা পরিষদ কর্তৃপক্ষ গাইবান্ধা সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

তথ্যানুযায়ী- গাইবান্ধা-সাঘাটা সড়কের নশরৎপুরে গণ উন্নয়ণ কেন্দ্রের কার্যালয়ের সামনে থেকে এ বছরের ৪ মে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা আফতাব হোসেন, তার লোকজন দিয়ে জেলা পরিষদের ৫টি মেহগনি ও ১টি আম গাছ কেটে ফেলে। এ ঘটনায় আফতাব হোসেন ও এনজিও কর্মী হারুনের নাম উলে¬খ করে অজ্ঞাত আরও ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে সেসময় জেলা পরিষদের সার্ভেয়ার জহুরুল ইসলাম বাদী হয়ে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

১০মাসের মাথায় মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মমিরুল হক আপোষনামামূলে মামলাটি সমাপ্তির জন্য কোর্টে একটি চুড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। আপোষনামায় জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর থাকলেও তিনি এবিষয়ে কিছুই জানেন না বলে দাবি করেন……………………

উর্দ্ধতন কর্মকর্তার দৃষ্টি আকর্ষণের মধ্য দিয়ে আমাদের সাথে এলাকাবাসীর দাবী, বিষয়গুলো সুষ্ঠ সমাধানে আসুক এটি প্রত্যাশা সকলের। ধন্যবাদ আজ এপর্যন্ত। আবার ফিরবো সেই পর্যন্ত আপনারা সুস্থ থাকবেন, নিরাপদে থাকবেন, আর নিজেকে অন্যায় থেকে দুরে রাখবেন।

(ভিডিওতে বিস্তারিত দেখুন, লাইক/শেয়ার এবং সাবস্ক্রাইব করুন)

www.mktelevision.net/খালেদ হোসেন/হাবিব ইফতেখার/শাহিনুর/মৌরী/রফিক

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*