রংপুর প্রতিনিধি :

সারাদেশে বেড়ে চলছে শিশু ধর্ষণ, ছাত্রী ধর্ষণ, গণধর্ষণ শুধু তাই নয় ধর্ষণ শেষে মোবাইল ভিডিওতে রেকর্ড করে মোটা অংকের টাকা দাবী। পরিশেষে হত্যা। তেমনি আবারও গণধর্ষণে শিকার হলো দুই ছাত্রী ।
রংপুরের নরদান নার্সিং ইনিস্টিটিউটের প্রথম বর্ষের দুই ছাত্রীকে গণধর্ষনের অভিযোগে দুই বয়ফ্রেন্ডসহ একই প্রতিষ্ঠানের পাঁচ ছাত্রকে আটক করেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটলো কিভাবে তা জেনে নেই আমাদের প্রতিনিধি শফিউল করিম শফিক পাঠানো তথ্য ও ভিডিও চিত্রে ডেস্ক থেকে আমি ইফতেখার বিস্তারিত জানাচ্ছি-

২৭ অক্টোবর নোট সংগ্রহ করতে দুই বয়ফ্রেন্ড নিমাই ও আলমগীরের মেসে আসে দুই ছাত্রী।
সেই মেসের আর একজন ছাত্র আলমগীর কুমতলব এঁটে মেয়েদেরসহ দুই বয়ফ্রেন্ড নিমাই ও আলমগীরকে বেঁধে একটি কক্ষে তালাবদ্ধ করে রাখে। পরে মতলববাজ আলমগীর সেই সুযোগে তার আরো তিন বন্ধুকে ডেকে এনে পাঁচজন মিলে রাতভর দুই ছাত্রীকে গণধর্ষণ করে, তৎসঙ্গে মোবাইল ফোনে ভিডিও করা হয়। আর সেই ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হবে, এই হুমকি দিয়ে মোটা অঙ্ককের টাকা দাবি করে দুই ছাত্রীর কাছে।

কথা অনুযায়ী স্থান ত্যাগের পর ঘটনাটি আতঙ্কগ্রস্থ হলে ইন্সটিটিউট কর্তৃপক্ষে কাছে বিচার চেয়ে অভিযোগ দেয়, সেই দুই ছাত্রী। কিন্তু কর্তৃপক্ষ বিষয়টিতে মাথা না ঘামালে। তারা বাধ্যহয়ে
গত রাত ১২ টায় কোতয়ালি থানায় তারা মামলা দায়ের করে। মামলার প্রেক্ষিতে ঘটনার মূল নায়ক ওই প্রতিষ্ঠানের শেষ বর্ষের ছাত্র মতলববাজ আলমগীর কবির এবং দুই বয়ফ্রেন্ডসহ পাঁচজনকে আটক করে পুলিশ।

এব্যাপরে থানার অফিসার ইনচার্জ এ বি এম জাহেদুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন-………..
এ খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে পুলিশের এক কর্মকর্তা কর্তৃক সাংবাদিক লাঞ্চিতের ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এব্যাপারেও উর্দ্ধতন পুলিশ কর্মকর্তার দৃষ্টি আকৃষর্ণ আশা করছেন সাংবাদিক মহল।

mktelevision.net/শফিউল করিম শফিক/হাবিব ইফতেখার/আল মামুন/নিপূণ সাহা/ ইফতেখার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*