ময়ূরকণ্ঠী ডেস্ক:

সোমবার কোপা আমেরিকার ফাইনালে চিলির কাছে হারের পর মেসি আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন। খুবই অপ্রত্যাশিত এই ঘোষণায় ফুটবলবিশ্ব বড় ধাক্কা খেয়েছে। আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট, ডিয়েগো ম্যারাডোনা, ভক্ত-সমর্থকরা মেসিকে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু টানা তিনটি বড় আসরের ফাইনালে হারার পর বুক ভেঙে গেছে মেসির।আর্জেন্টিনার হয়ে বড় কোনো আসরের শিরোপা জেতা হলো না তার। এই বুক ভাঙা কষ্ট নিয়েই স্বেচ্ছায় নির্বাসনে গেছেন ফিফার পাঁচবারের বিশ্ব বর্ষসেরা ফুটবলার। লিওনেল মেসির চোখে জল। তার শত্রুর চোখও আর্দ্র হয় তাতে। ফুটবলে মেসির সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী আসলে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোই। পর্তুগিজ এই সুপারস্টার কোপার ফাইনালে হারের পর মেসির চোখে জল দেখে খুব কষ্ট পেয়েছেন। কষ্ট পেয়েছেন মেসি এই অসময়ে অবসর নিয়ে নেওয়ায়ও। রোনালদোর আশা, সিদ্ধান্ত বদলে আবার আর্জেন্টিনা দলে ফিরবেন মেসি। গত আধা যুগের বেশি সময় ধরে ফিফার বিশ্ব বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের লড়াইটা মেসি ও রোনালদোর মাঝে। স্পেনে চিরশত্রু দুই ক্লাবে খেলেন। সেখানেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা চরমে। তবে রিয়াল মাদ্রিদের মহাতারকা রোনালদো ঠিকই বার্সেলোনার মেসির খেলার ভক্ত। রোনালদো আবার মেসিকে আর্জেন্টিনার সাদা-নীল জার্সিতে দেখার অপেক্ষায়। কোপা মুন্ডিয়াল ফিফা কলম্বিয়ার ফেসবুক পেইজে সিআরসেভেনের একটি পোস্ট প্রকাশ করেছে। সেই পোস্টে রোনালদো বলেছেন, “মেসি অনেক কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সমর্থকদের তা বুঝতে হবে। মেনে নিতে হবে। জীবনে হারতে ও দ্বিতীয় হতে অভ্যস্ত না সে।” যেন মেসিকে বোঝাচ্ছেন রোনালদো, “একটা পেনাল্টি মিস করলেই তো আর খারাপ খেলোয়াড় হয়ে গেলে না তুমি। কিন্তু মেসির চোখে জল দেখে খুব কষ্ট পেয়েছি। আশা করি জাতীয় দলে সে ফিরে আসবে। কারণ তাকে তাদের দরকার আছে।”

mktelevision.net/ডেস্ক রিপোর্ট;

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*