ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:
১৭ বছর আগের সুস্থ সাবিহা এখন মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে শিকলে বন্দী। ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার কুশারীগাঁও (বড়বাড়ি) গ্রামের সাবিহা বেগম ১৫ বছর বয়সে নবম শ্রেণিতে পড়ার সময় বিয়ে হয়ে যায়। এখন তার বয়স ৩২ বছর। বর্তমানে সম্পূর্ণ মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ৯ বছর ধরে ঘরে বন্দি জীবন পার করছে সে। সম্প্রতি সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হাতে শিকল বাঁধা অবস্থায় কাঠের একটি চৌকিতে বসে আছে সাবিহা। তার মা আলেয়া বেগম জানায়, ………

তার মা আরো বলে, বাবার বাড়িতে আসার কয়েক মাস পর সাবিহা এক ছেলে সন্তানের জন্ম দেয়। এরপরও কোন খবর রাখেনি স্বামী মিজানুর রহমান। গরিব মা বাবার পরিবারেই নতুন জীবন শুরু হয় মা-ছেলের। সাবিহার মা-বাবা দু’জনই দিনমজুরের কাজ করত। হঠাৎ করেই বাবা ইমাম উদ্দিন মারা গেলে অন্ধকার নেমে আসে মা-মেয়ের জীবনে।

বেঁধে রাখা বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে সাবিহার মা বলে, ….

এদিকে সাবিহার ছেলে সপ্তম শ্রেণি পড়–য়া মাখমুদ রহমান বলে, …
mktelevision.net/আমিনুর রহমান/আল মামুন/মোস্তাফিজুর রহমান

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*