ময়ূরকন্ঠী আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ01

পরমাণু যুদ্ধের জন্য সেনাবাহিনীকে আগেই প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন কিম জং উন। এবার সরাসরি আমেরিকার উপর পরমাণু হামলার হুমকি দিলেন উত্তর কোরিয়ার এই শাসক নেতা। উত্তর কোরিয়ার নিউজ এজেন্সি কেসিএনএ সূত্রে খবর, মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের আগ্রাসী পদক্ষেপ রুখতে প্রয়োজনে পরমাণু হামলা চালাবে উত্তর কোরিয়া। আমেরিকার মূল ভূখণ্ড ছাড়াও এশিয়া- প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে, যেখানে আমেরিকা তত্পর, সেখানেও এই হামলারা হুমকি দিয়েছে উত্তর কোরিয়ার সেনাবাহিনী। কিম জংয়ের কথায়, আমরা চাইলে শত্রুপক্ষকে যেকোনো সময় একটা বোতাম টিপে ধ্বংস করে দিতে পারি। সেই ক্ষমতা আমাদের রয়েছে। নিমেষের মধ্যে শত্রুরা ছাই হয়ে সাগরে মিশে যাবে। স্বাধীন দক্ষিণ কোরিয়ার জন্য সেখানে মিলিটারি অপারেশনেরও পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার এই একনায়ক। গত সপ্তাহেই দক্ষিণ কোরিয়ায় পৌঁছেছে ১৫ হাজার মার্কিন নৌসেনা। উত্তর কোরিয়া হামলা চালালে, কী ভাবে তার মোকাবিলা করা হবে, তা নিয়ে যৌথ মিলিটারি মহড়ার জন্যই দক্ষিণ কোরিয়ায় আসা মার্কিন নৌসেনার। সম্ভাব্য হামলা মোকাবিলায় দক্ষিণ কোরিয়া কতটা সক্ষম, তা পরখ করে নেওয়াও আমেরিকার উদ্দেশ্য। সোমবার থেকেই এই মিলিটারি মহড়া শুরু হয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ার ৩ লক্ষ সেনা তাতে শামিল হয়েছেন। পরমাণু অস্ত্র বহনে সক্ষমে মার্কিন নৌসেনার বিশেষ বিমানও রয়েছে এই মহড়ায়। আমেরিকার সঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়ার এই যৌথ সামরিক মহড়ার জেরেই কিম জংয়ের এই হুমকি বলে মনে করছেন সামরিক বিশেষজ্ঞরা। কিম জংয়ের হুমকি অবশ্য এই প্রথম নয়। এর আগেও কখনও দক্ষিণ কোরিয়া, কখনও আমেরিকার বা বিশ্বের অন্য কোনো দেশকে হুমকি দিয়েছেন। কিম যে ভাবে বারবার পরমাণু হামলার হুমকি দিচ্ছেন, তাতে গোটা বিশ্বের কাছে মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে উত্তর কোরিয়া। যদিও দক্ষিণ কোরিয়া কিমের হুমকিকে পাত্তা দিতে চায় না। উলটে পালটা হামলার হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

mktelevision.net/নাভিদ মুসতাসিম ঋষু/রাজু কুমার দাস/আল মামুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*