Bank

ময়ূরকণ্ঠী ডেস্ক :

রিজার্ভ থেকে ৮০০ কোটি টাকা লোপাটের ঘটনায় ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কের বিরুদ্ধে মামলা করছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এজন্য নিউইয়র্কে একজন আইনজীবী নিয়োগ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তবে এখন পর্যন্ত মামলা করা হয়নি। খবর রয়টার্সের।

বাংলাদেশ ব্যাংকের একটি প্রতিবেদনে আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে লোপাট করা অর্থ ফেরত আনার সুপারিশ করা হয়। তবে এর আগে এক বিবৃতিতে নিউইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ বলেছে, তাদের সিস্টেমে কোনো ত্রুটি ছিলনা এবং উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের নির্দেশেই যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করেই ফেব্রুয়ারির শুরুতে ওই অর্থ স্থানান্তর করা হয়।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে জালিয়াতি করে সুইফট কোডের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকের ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরি করা হয়। ঘটনা জানার পরও বিষয়টি গোপন রেখে চুরি হওয়া অর্থ ফেরত আনতে গত ১৬ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ব্যাংকের সদ্য সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান ফিলিপাইনের ব্যাংকো সেন্ট্রালের গভর্নর আমান্ডো টেটাংকো জুনিয়রের কাছে সহযোগিতা চেয়ে চিঠি লেখেন। এরপর গত ২৯ ফেব্রুয়ারি ফিলিপাইনের দৈনিক দি ফিলিপিন্স ডেইলি ইনকোয়ারারের এক প্রতিবেদনে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির খবর জানায়। এরপর বাংলাদেশী সংবাদমাধ্যমেও এ খবর এলে তোলপাড় শুরু হয়।গত ৭ মার্চ বাংলাদেশ ব্যাংক টাকা চুরির ঘটনা স্বীকারের পাশাপাশি দাবি করে, দেশের বাইরে থেকে হ্যাকাররা অর্থ চুরি করেছে।

mktelevision.net/আল মামুন/ইফতেখার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*