ময়ূরকণ্ঠী খেলার ডেস্ক :

ওমান ম্যাচের ফলাফলের ওপর নির্ভর করছে বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ। কিন্তু সূচিটাই এমন, এক মুহূর্ত বসে থাকার জো নেই। সুপার টেনের ছক নিয়ে ভাবতে হচ্ছে। এই ম্যাচে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল হারলেই কেবল খড়্গ নামবে। জিতলে তো বটেই, বৃষ্টিতে ম্যাচ বাতিল হয়ে গেলেও নেট রান রেটে এগিয়ে থাকার সুবাদে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শেষ দশে উঠে যাবে বাংলাদেশ। আর শেষ দশে ওঠা মানে ভারতের মাটিতে দেখা যাবে ‘মুস্তাফিজ- ঝলক’! এমনকি কলকাতাতে ১৬ মার্চ পাকিস্তানের বিপক্ষে সুপার টেনের প্রথম ম্যাচেও তাঁকে বল হাতে মাঠে দেখলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। ধর্মশালা থেকে মুঠোফোনে সেরকম আভাসই দিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা প্রধান আকরাম খান, ‘মুস্তাফিজের শারীরিক অবস্থার এখন পর্যন্ত ভালোই উন্নতি হয়েছে। এ রকম চলতে থাকলে ইনশা আল্লাহ দ্বিতীয় পর্বের প্রথম ম্যাচেই ওকে দলে পাওয়া যাবে।’ আকরামের আশা পূরণ করে সুপার টেনের প্রথম ম্যাচে খেলতে পারলে কলকাতাতে ক্যারিয়ারের একেবারে শুরুর দিকের দুই রকম অনুভূতি ফিরে পাবেন মুস্তাফিজ। পাকিস্তান, ভারত দুটো ব্যাপারই যে থাকছে এই ম্যাচে! এই ম্যাচের প্রতিপক্ষ পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ দিয়েই গত বছরের এপ্রিলে মিরপুরে তাঁর আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের শুরু। আর গত বছরেরই জুনে ওয়ানডে অভিষেকেই ভারতের ব্যাটসম্যানদের কেমন নাকাল করেছিলেন ‘কাটার- মুস্তাফিজ’, সেটাও নিশ্চয়ই এত তাড়াতাড়ি ভুলে যায়নি মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। সেই থেকে ভারতের মানুষেরও বাংলাদেশের এই বাঁহাতি পেসারকে নিয়ে দারুণ কৌতূহল। ধর্মশালায়ও নাকি সেটা ভালোভাবেই অনুভব করা যাচ্ছে। বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে সাকিবের পরে মুস্তাফিজকেই সবচেয়ে বেশি চেনে সেখানকার মানুষ। মুস্তাফিজের কারণে পাকিস্তান ম্যাচে তাই হয়তো ভারতীয় সমর্থকদের কিছু বাড়তি হাততালি পাবে বাংলাদেশ দল। তা ছাড়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কয়েক দিন পরেই শুরু আইপিএল। যেখানে হায়দরাবাদের হয়ে খেলবেন মুস্তাফিজ। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পাঁজরে চোট পাওয়ার পর ধারণা করা হচ্ছিল সপ্তাহ দুয়েকের মধ্যে বোলিংয়ে ফিরতে পারবেন মুস্তাফিজ। আজ বিকেলে সে আশাটাই পূরণ হওয়ার কথা। হিমাচল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামের বাইরের নেটে অল্প রান আপ এবং অল্প জোরে বোলিং শুরু করার কথা মুস্তাফিজের। ম্যাচ না খেললেও দলের সঙ্গে থেকে ফিজিও বায়েজিদুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে এই কয়দিন চলেছে তাঁর পুনর্বাসন প্রক্রিয়া।

mktelevision.net/নাভিদ মুসতাসিম ঋষু/ইফতেখার/আল মামুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*