ময়ূরকণ্ঠী খেলার ডেস্ক :
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে দু্ই প্রতিবেশী দেশ নেদারল্যান্ডস ও আয়ারল্যান্ডস বিদায় নিয়েছে প্রথম ম্যাচ হেরেই। দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেলে হয়ত একটি সুযোগ থাকত। কিন্তু বৃষ্টিতে ভেস্তে যায় তাদের টিকে থাকার সম্ভাবনা। শেষ ম্যাচটি তাদের জন্যে শুধুই আনুষ্ঠানিকতার। তবে এ ম্যাচটিকে নিয়ে দুই দলের রোমাঞ্চের কমতি ছিল না। দুই দলের পরিবারের সদস্যরাও মাঠে উপস্থিত হয়েছিলেন সাহস ও সমর্থন জোগাতে। কারণ ম্যাচটি দুই দলের জন্যে গৌরবের লড়াই। বিমানে আয়ারল্যান্ড থেকে নেদারল্যান্ডস যেতে সময় লাগে মাত্র ১ ঘন্টা ৭ মিনিট। দুই দলের প্রতিনিয়তই আনাগোনা থাকে। সবচেয়ে বড় কথা দুই দলের ক্রিকেটাররা একই সঙ্গে খেলে থাকেন কাউন্টি ক্রিকেট। শক্তির বিচারে দুই দলের কাউকেই পিছিয়ে রাখা যাবে না। আয়ারল্যান্ডের ও’ব্রায়েন ব্রাদার্স, উইলিয়ামস পোর্টারফিল্ড, পল স্টারলিং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিভিন্ন সময়ে ঝড় তুলেছেন। নেদাল্যান্ডসের টপ কুপার, স্টিভেন মাইবার্গ ও পিটার বোরেন দীর্ঘদিন ধরে ক্রিকেট খেলছেন। তাদের সঙ্গে নাগরিত্ব নিয়ে নতুন করে যোগ দিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ফন ডান মারউই। ঢাকা লিগে ভিক্টোরিয়ার হয়েও খেলেছিলেন ডানহাতি এই স্পিন অলরাউন্ডার। সব মিলিয়ে দুই দলের অধিকাংশ ক্রিকেটাররাও পরিচিত। তাই দুই দলের লড়াইটি ছিল এক অর্থে হাইভোল্টেজ। পরিসংখ্যানের বিচারেও লড়াইটির তাপমাত্রা হিমাচল প্রদেশের ধর্মশালায় ছড়িয়ে পড়েছিলে। রোববারের ম্যাচের আগে দুই দল ৫টি করে টি-টোয়েন্টি খেলেছিল। ২টি করে ম্যাচ জিতেছিল দুই দল। ১টি ম্যাচে ফল বের হয়নি। আজ যে জিতবে সেই এগিয়ে যাবে। সেই লড়াইয়ের শুরুতেই প্রকৃতির মন খারাপ। সকাল থেকে ধর্মশালায় বৃষ্টি না থাকলেও দুপুর ১২টার পর গুড়িগুড়ি বৃষ্টি শুরু হয়। সময়ের সাথে বেড়ে যায় বৃষ্টির পরিমাণ। দুই দলের ক্রিকেটাররা মাঠে উপস্থিত হলেও অলস সময় পাড় করেন ড্রেসিং রুমে। বিকেল ৩টায় শুরু হওয়া ম্যাচ শুরু হল ২ ঘন্টা ৪০ মিনিট পর। ২০ ওভারের ম্যাচ নেমে এল ৬ ওভারে। খেলার অপেক্ষায় থাকা দুই দলের ক্রিকেটাররাই মাঠে নামলেন। প্রতি ম্যাচ শুরুর আগে দুই দলের জাতীয় সংগীত গান ক্রিকেটাররা। কিন্তু সময়ের অপচয়ে এ ম্যাচে সেগুলোর কিছুই হল না। আয়ারল্যান্ডস টসে জিতে নেদারল্যান্ডসকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানিয়ে বড্ড বড় ভুল করে বসে। নির্ধারিত ওভারে ৯.৮৩ গড়ে রান তুলে নেয় ৫৯। ওভারপ্রতি ১০ রান তাড়া করে জয় পেতে আয়ারল্যান্ড শেষ মুহুর্ত পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যায়। কিন্তু ১২ রানের আক্ষেপে পুড়তে হয় তাদের। ৪৭ রানে শেষ হয় তাদের ইনিংস। পেসার পল ভন ম্যাকরেনের ৪ উইকেট ও ফন ডান মারউইয়ের ২ উইকেটে স্বপ্ন যাত্রা শেষটা আফসোসে পরিণত হয় আইরিশদের। ১২ রানের জয়ে অপ্রাপ্তির টুর্নামেন্টে খানিকটা প্রাপ্তি যোগ হয় নেদারল্যান্ডসের। ব্যাটিংয়ে নেদারল্যান্ডসের হয়ে ২৭ রান করেন মাইবার্গ। ১৮ বলে ৫ বাউন্ডারিতে করেন এ রান। ১৪ রান করেন পিটার বোরেন। আইরিশদের হয়ে ৩টি উইকেট নেন ডর্কয়েল। ব্যাটিংয়ে তাদের সেরা ব্যাটসম্যান পল স্টারলিং (১৫)।
mktelevision.net/নাভিদ মুসতাসিম ঋষু/ইফতেখার/আল মামুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*