ময়ূরকণ্ঠী খেলার ডেস্ক :

পাঁচটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হয়ে গেছে। এখনো অস্ট্রেলিয়া ট্রফিটা জেতেনি একবারও। অবাক করার মতো বিষয় তো অবশ্যই। চ্যা ম্পিয়নস ট্রফিটা দীর্ঘ দিন এক রহস্য হয়ে ছিল। অবশেষে ২০০৬ সালে এসে এই ভারতেই প্রথম এই ট্রফিটা জেতে ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল দলটি। এবার কি টি-টোয়েন্টিতেও হলুদের রাজত্ব? সত্যি বলতে কি, অস্ট্রেলিয়া টি- টোয়েন্টি খেলাটাকে ততটা গুরুত্ব এখনো দেয়নি। কথাটা বিভ্রান্তিকর শোনাতে পারে। টি-টোয়েন্টির চেহারা বদলে দেওয়া বিগ ব্যাশ লিগটা অস্ট্রেলিয়াতেই হয়। এই বিগ ব্যাশের সৌজন্যেই টি-টোয়েন্টি এত প্রযুক্তির ছাপ। কিন্তু ঘরোয়া ক্রিকেটে টি-টোয়েন্টি যতটা আয়োজন করে হয় অস্ট্রেলিয়ায়, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ততটা নয়। এর প্রমাণ মিলবে এই তথ্যে, গোটা ২০১৫ সালে অস্ট্রেলিয়া টি- টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে মাত্র একটি! দেশটির সাবেকদের অনেকের মুখেই শুনতে পাবেন, টি-টোয়েন্টি সময়ের অপচয়। এমনকি গত জানুয়ারিতে ঘরের মাঠে ৩ ম্যাচের টি- টোয়েন্টিতে ভারতের কাছে ধবলধোলাই হয়েও তেমন একটা শোরগোল পড়েনি, অথচ ক্রিকেটের যেকোনো ফরম্যাটেই অস্ট্রেলিয়াকে তাদেরই মাঠে ধবলধোলাই করা বিস্ময়কর বললেও কম বলা হয়। তাই বলে ভাববেন না, ইচ্ছে করেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ তারা জিততে চায় না। অবশ্যই চায়। রেকর্ড পাঁচবার ওয়ানডে বিশ্বকাপ জেতা অস্ট্রেলিয়া এখানেও চায় নিজেদের পতাকা সগৌরবে ওড়াতে। এ কারণে এবার কোমর বেঁধেই প্রস্তুতি নিচ্ছে। আর প্রস্তুতিটা জম্পেশ হলো দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজে। সিরিজটি ২-১-এ জিতেছে বলেই নয়, অস্ট্রেলিয়া তৃপ্তি পেতে পারে জয়ের ধরনে। দ্বিতীয় ম্যাচটিতে দক্ষিণ আফ্রিকার ২০৪ তাড়া করে জেতার পর গতকাল ১৭৯ রানের লক্ষ্যও অস্ট্রেলিয়া পেরিয়ে গেছে ৬ উইকেট হাতে রেখে। দলের প্রথম চার ব্যাটসম্যানের প্রত্যেকে ত্রিশ থেকে চল্লিশের ঘরের ইনিংস খেলেছেন। কাল বৃথা গেল হাশিম আমলার ক্যারিয়ার সেরা ৯৭ রানের ইনিংসটি। এই ফরম্যাটেও দায়িত্ব নিয়ে স্টিভেন স্মিথও যেন নেতৃত্ব দিচ্ছেন সামনে থেকে। দলের সবাই এখন এমনই ছন্দে, টেস্ট-ওয়ানডে কি টি- টোয়েন্টি—অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে ফর্মে থাকা ব্যাটসম্যান উসমান খাজা পর্যন্ত কাল বললেন, ভারতে প্রতি ম্যাচে একাদশে জায়গা পাবেন এতটা আশা নাকি তিনিও করেন না! বিশ্বকাপে কঠিন গ্রুপে পড়েছে অস্ট্রেলিয়া। ভারত, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড ছাড়াও এই গ্রুপে তাদের সম্ভাব্য সঙ্গী বাংলাদেশও। গ্রুপ অব ডেথ যাকে বলে! অস্ট্রেলিয়া কিন্তু সেই পরীক্ষার জন্য প্রস্তুত হয়েই যেন আসছে ভারতে।
mktelevision.net/নাভিদ মুসতাসিম ঋষু/ইফতেখার/আল মামুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*