ময়ূরকণ্ঠী রূপচর্চা ডেস্ক :

বর্ষাকাল মানেই চুলের একের দফারফা। চুলের ঔজ্জ্বল্য নষ্ট হয়ে যায়, চুল খুব রুক্ষ দেখায়। শ্যাম্পু, কন্ডিশনারে উপস্থিত রাসায়নিক পদার্থ চুলকে আরও ক্ষতিগ্রস্ত করে। চুলকে সুস্থ রাখতে গেলে চুলের যত্ন নিতে হবে। শুধু তেল বা শ্যাম্পু করলেই কাজ হয়না। চুলকে আহার দিতে হবে। তার জন্য প্রয়োজন হেয়ার মাস্কের। কিন্তু বিউটি পার্লারে গিয়ে হেয়ার স্পা করানো বা হেয়ার প্যাক লাগানোয় খরচ তো রয়েছেই তাছাড়া সেই কেমিক্যালের ভয় তো আছেই। (ছবি) কমবয়সেই চুল ওঠার সমস্যায় ভুগছেন? জেনে নিন আসল কারণ তাই পার্লারে ভরসা না করে বাড়িতে বসে নিজেই বানিয়ে ফেলুন নিজের প্রয়োজনমতো হেয়ার মাস্ক। প্রাকৃতিক পদার্থ দিয়ে তৈরি হওয়ায় চুল ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কোনও সম্ভাবনাই থাকে না। রুক্ষ চুলের সমস্যা মেটাতে বাড়িতে ৬ টি হেয়ার মাস্ক বা হেয়ার প্যাকের সন্ধান দেওয়া হল।

আমলকি ও লেবু :
আমলকি ভিটামিন সি তে ভরপুর। এছাড়াও এতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে। যা চুল পড়া আটকায়। একইসঙ্গে চুল উজ্জ্বল করে। কাঁচা আমলকি বেটে লেবুর রস মিশিয়ে তা চুলে লাগান। দেড় থেক ২ ঘন্টা রেখে দিন। তারপর ধুয়ে নিন।

নারকেলের দুধ :
নারকেলে প্রোটিন, মিনারেল এবং এমন আরও উপকরণ রয়েছে যা চুলের ডগা ভেঙে যাওয়া রোধ করে। নারকেলের দুধ ভারি হয় তাই তাতে অল্প জল মিশিয়ে নিন। পাতলা হয়ে গেলে এই মিশ্রণটি চুলে লাগান। ১ ঘন্টা রেখে ধুয়ে দিন।

পেঁয়াজ ও রসুন :
পেঁয়াজ ও রসুন প্রচুর পরিমাণে সালফার থাকে। যা চুলের জন্য ভাল। এই জন্য প্রাচীন কাল থেকে চুলের জন্য পেঁয়াজ ও রসুনের ব্যবহার হয়। পেঁয়াজের রস বের করে নিন। এবার এতে অল্প লেবুর রস দিন। মাথায় লাগিয়ে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর শ্যাম্পু করে ধুয়ে নিন। এবার নারকেল তেল ও রসুন কুচি একটি পাত্রে ফুটিয়ে নিন কিছুক্ষণ। এবার এই গরম তেল আস্তে আস্তে মাথার তালুতে মালিশ করুন। একটা দিন রেখে পরের দিন শ্যাম্পু করে নিন।

সরষের তেল ও হেনা :
হেনা গুঁড়োর সঙ্গে অলিভ অয়েল বা সরষের তেল মিশিয়ে একটা পেস্ট করে নিন। মাথায় লাগানোর পর ২ মিনিট রেখে দিন। এরপর হাল্কা শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে নিন।

ডিম এবং অলিভ :
অয়েল ডিমের সাদা অংশের সঙ্গে অলিভ অয়েল মিশিয়ে মাথায় লাগান। লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে দিন। ঠান্ডা জল দিয়ে ভাল করে ধুয়ে নিন। এতে চুল নরম হবে এবং রূক্ষতা যাবে।

জবা ও তেল :
জবা ফুল বেটে নারকেল তেলের সঙ্গে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি মাথায় লাগিয়ে কয়েক ঘন্টা রেখে দিন। এরপর শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে নিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*